Traffic Exchange সাইট ব্যবহার করা উচিত নয় কেনো?


ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইটের অপকারিতা, কুফল, কেনো ট্রাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইট ব্যবহার করা উচিত নয়,

ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইট হচ্ছে এমন কিছু সাইট, যেখানে আপনি অন্যদের ওয়েবসাইট ভিজিট করেন এবং অন্যরাও আপনার সাইটে ভিজিট করে। ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জ সাইটগুলোতে সাইন আপ করার পর আপনাকে কিছু ওয়েবসাইট ১৫ থেকে ৩০ সেকেন্ড এর জন্য ভিজিট করতে বলা হবে। আপনি যত বেশি সাইট ভিজিট করবেন, তত বেশি ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটেও আসবে। এইভাবে আপনি আপনার ব্লগে শত শত ভিজিটর পেতে পারেন।



ওয়াও, এত্ত সহজে শত শত ভিজিটর পাওয়া যাবে! তাহলে এটি ব্যবহার করতে অসুবিধা কোথায়?

আসলে এটি অনেকটা "দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো"র মতো ব্যাপার। যাদের ব্লগে তেমন ভিজিটর আসে না, তারা ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইটের মাধ্যমে নিজেদের ব্লগে ভিজিটর বাড়ানোর চেষ্টা করে। বিশেষ করে নতুন ব্লগাররা এই কাজটি সবচেয়ে বেশি করে থাকেন।

আমি আমার ব্লগে ২-৩ বার ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জ ব্যবহার করেছিলাম। আমার ব্লগটি মাত্র এক সপ্তাহে কয়েক হাজার ভিউ পেয়েছিল। কিন্তু পরে কিছু আর্টিকেল পড়ে জানতে পারলাম এটি আমার ব্লগে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে। এরপর থেকে আমি এসব সাইট ব্যবহার বাদ দিয়েছি।

আমি মনে করি, আমার মতো যারা আছেন, বিশেষ করে নতুন ব্লগারদের এটি সম্পর্কে সতর্ক করা উচিত। তাই এই আর্টিকেলটি লিখে ফেললাম। তাহলে চলুন দেখি কেনো ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করে উচিত নয়?

➺ ফেইক ভিজিট
হ্যাঁ, ফেইক ভিজিট। যেহেতু সাইটগুলোতে ক্যাপচার কোনো ব্যবস্থা থাকে না তাই বেশিরভাগ ইউজারই সাইট ভিজিট করার জন্য বট ব্যবহার করেন। তার মানে এখান থেকে পাওয়া ভিজিটগুলো জাল ভিজিটের থেকে কম না। আর যারা বট ব্যবহার করেন না, তারাও আপনার ব্লগের কনটেন্ট না দেখেই কোনো রকমে সাইট ভিজিট করে চলে যান। বুঝতেই পারছেন, আপনার সাইটে কোনো আসল ভিজিটর আসছে না। যা আসছে পুরোটাই ফেইক। ফেইক দিয়ে কয়দিন চলবেন?

➺ বাউন্স রেট বৃদ্ধি
কোনো একটি ওয়েবসাইট ভিজিট এবং সেখান থেকে বেরিয়ে যাওয়ার মধ্যের সময়টুকুই বাউন্স রেট। ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইটগুলোতে কেউ আপনার ওয়েবসাইট মাত্র ১৫ থেকে ৩০ সেকেন্ড যাবত ভিজিট করে চলে যায়। ফলে আপনার বাউন্স রেট বাড়তে থাকে। এটি সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইটের র‌্যাংকে প্রভাব ফেলবে। সাইটের বাউন্স রেট বেড়ে গেলে সার্চ ইঞ্জিন ধরে নেয় যে, আপনার সাইটে ভালো কোনো কন্টেন্ট নেই। তাই এটি আপনার পেইজকে র‌্যাংক করে না।

➺ কেউ আপনার সাইটের বিষয়ে চিন্তা করে না
ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইটে ইউজাররা একসাথে কয়েকটি সাইট ভিজিট করে। যেহেতু তারা নিজেদের ওয়েবসাইটে দ্রুত ট্র্যাফিক চায়, তাই তারা অন্যের সাইটের ব্যাপারে তেমন একটা ভাবে না। এর অর্থ হলো ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জিং সাইটের কেউই আসলে আপনার সাইট পুনরায় ভিজিট করে না।

➔ তার মানে আপনি পাচ্ছেন শত শত নকল ভিজিট! কিন্তু ফলাফল শূন্য। সত্যি বলছি, এই ধরনের সাইটগুলি হলো শুধুমাত্র সময় নষ্ট। আপনি যদি ব্লগে গুগল অ্যাডসেন্স ব্যবহার করতে চান, তাহলে অবশ্যই ট্র্যাফিক এক্সচেঞ্জ এড়িয়ে চলা উচিত। কেননা গুগল চায় মানসম্মত কনটেন্ট। ট্রাফিক এক্সচেঞ্জিং করলে গুগল যেকোনো সময় আপনার অ্যাডসেন্স বাতিল করতে পারে।

তাই এসব চিন্তা বাদ দিয়ে আপনার ব্লগ বা সাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের জন্য অপটিমাইজড করার চেষ্টা করুন। ব্লগে মানসম্পন্ন কনটেন্ট লিখুন। বিভিন্ন অনলাইন ফোরাম বা ওয়েবসাইটে যুক্ত হয়ে সেখানে লেখালেখি করতে পারেন। হয়তো একটু দেরী হবে, কিন্তু আপনি আপনার পরিশ্রমের ফল অবশ্যই পাবেন।

সুপ্রিয় পাঠক, আর্টিকেলটি পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ। নিচে কমেন্টে আপনার মতামত বা অভিজ্ঞতা জানাতে ভুলবেন না।

Post a Comment

0 Comments